Chorabali Logo
স্বাস্থ্য

৪ টি ছেলেদের চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

জেনে নেই ছেলেদের চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায় গুলো। শ্যাম্পু, লেবু, ও কিছু ভিটামিন জাতীয় খাবার এবং ওষুধ  চুল পড়া এবং খুশকি কমাতে খুব ভালো কাজ করে। শীতকালে ছেলেদের খুশকি বেশি হয়। ধুলাবালি ও আদ্র আবহাওয়ার কারণে খুশকি হয় এবং চুল পড়া শুরু করে।

এছাড়াও চুলের রুক্ষতা এবং মাথার ত্বকে বিভিন্ন ধরনের সংক্রমক হতে পারে। অনেকের ক্ষেত্রে এই সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করে। তবে নির্দিষ্ট কিছু পদ্ধতির মাধ্যমে এই খুশকি চিরতরে দূর করা সম্ভব। 

ছেলে হোক বা মেয়ে খুশকি স্বাভাবিক ভাবে সবারই হয়। তবে ছেলেদের ক্ষেত্রে এইটা বেশি দেখা যায়। ৯৯% মানুষের খুশকি হলে চুল পড়ে।  অর্থাৎ চুল পড়া থামাতে খুশকির চিকিৎসা গুরুত্বপূর্ণ। 

চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় গুলো

খুশকি দূর করতে আপনি দুইটি কাজ করতে পারেন।  এক, কোন বিশেষত্ব ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন। দুই, ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিতে নিজে নিজে চিকিৎসা নিতে পারেন।

  •  শ্যাম্পু
  • চিকিৎসকের পরামর্শ 
  •  ঘরোয়া পদ্ধতি

খুশকি দূর করার শ্যাম্পু 

ডেন্সেল শ্যাম্পু” নামে একটি শ্যাম্পু আছে।  যা খুশকি দূর করার অনেক ভালো কাজ করে।  অনেক চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ তাদের রোগীকে এই শ্যাম্পু প্রেসক্রিপশন করে থাকে।  কোন মুদির দোকানে ছেলেদের চুল পড়া ও খুশকি দূর করার এই শ্যাম্পু পাওয়া যাবে না। তবে নিকটস্থ কোন ওষুধের দোকান থেকে এই শ্যাম্পু টি পাওয়া যাবে। 

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

ডাক্তারের পরামর্শ

যদি খুশকি অনেক খারাপ রুপ ধারন করে।  তাহলে অবশ্যই ডাক্তার শরণাপন্ন হবেন।  বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে আপনার এই রোগ খুব সহজে নির্ণয় করা সম্ভব।  আপনার নিকটস্থ হাসপাতালের কোন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের থেকে চিকিৎসা নিতে পারে। ডাক্তারের কাছ থেকে চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায় গুলো জেনে নিবেন। 

ছেলেদের চুল পড়া ও খুশকি দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি 

খুঁজছি দূর করার ঘরোয়া উপায়- প্রাচীন কাল থেকেই মানুষ তাদের বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা ঘরোয়া পদ্ধতিতে করে আসছে। খুব সহজে প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে লেবু সরিষার তেল নারিকেল তেল টক দই এবং কাঁচা ডিমের ঘরোয়া পদ্ধতিতে খুশকি ও চুল পড়া কমানো যায়। 

লেবু

ভিটামিন সি চুলের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।  নিয়মিত ভিটামিন সি যদি চুলের গোড়ায় পৌঁছায় তাহলে চুল পড়ার হার কমে যায়। সেইসাথে মাথার ত্বক ভালো থাকে। ফলে খুশকি হয় না।  লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে।   

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

নারিকেল তেল ও সরিষার তেল

খুশকি আমাদের মাথার ত্বকের আদ্রতার কম থাকার কারণে হয়।  অর্থাৎ মাথার ত্বক পানির অভাবে শুকিয়ে যায় এর ফলে উপরের অংশ মারা যায়।  তখন সেই মরে যাওয়া কোষকে আমরা খুশকি বলি।  নারকেল তেল এবং সরিষার তেল ব্যবহার করে মাথার ত্বকের আদ্রতা ঠিক রাখা যায়।  ফলে মৃত ত্বকের কমে যায় এবং খুশকির মতো সমস্যা গুলো দেখা যায় না। চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায় গুলোর মধ্যে এইটা সর্বোত্তম উপায়। 

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

তেল এবং টক দই

 বিভিন্ন পরীক্ষা এবং যারা এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করেছেন তাদের থেকে জানা যায় যে।  তেল এবং টক দই এর সাথে মিশ্রিত করে মাথায় নিলে চুল পড়া এবং খুশকি অনেক হারে কমে যায়। 

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

 কাঁচা ডিম

 ডিমের গুণাগুণ সম্পর্কে কমবেশি আমরা সবাই জানি।  হয়তো অনেকে জানেই না ডিম আমাদের খুশকি এবং চুল পড়া দূর করতে পারে।  গোসলের আগে মুরগির কাঁচা ডিম যদি মাথায় নিয়ে পাঁচ থেকে দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলেন।  দেখবেন আপনার চুলের স্বাস্থ্য এবং মাথার ত্বক সতেজ হয়ে গেছে।  ফলে চুল পড়া এবং খুশকি হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়

 অনেকের মতে দেশি মুরগির ডিম ভালো কাজ করে। 

খুশকি হবার কারণগুলো? 

খুশকি হওয়ার প্রধান কারণ হলো  মাথার শুষ্ক ত্বক। যাদের ত্বক সব সময় সুস্থ থাকে তাদের খুশকি হওয়ার প্রবণতা বেশি।  এছাড়াও বিভিন্ন কারণে মাথায় পুরস্কৃত হতে পারে। 

  • শুষ্ক ত্বক
  • ধুলাবালি
  • চুলের যত্নের অবহেলা
  • নিয়মিত তেল ব্যবহার না করা।
  • চর্ম রোগ জনিত কারণে হতে পারে। 
  • শীতকালে বেশি হয়। 

চিরতরে খুশকি দূর করার উপায়

হ্যাঁ, খুশকি এবং চুল পড়া দুটোই চিরতরে দূর করা সম্ভব।  তবে আপনাকে সঠিক নিয়ম মেনে চলতে হবে।  এমন না উপরের বর্ণিত উপায় গুলো আপনি একবার ব্যবহার করেছেন ফলে আপনার খুশকি আর হবে না।  বিষয় হলো যে সকল কারণে খুশকি এবং চুল পড়ে সেই দিকে আপনাকে নজর রাখতে হবে। 

  1. নিয়মিত তেল ব্যবহার করতে হবে। 
  2.  শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। 
  3.  আপনার ত্বক শুষ্ক অবস্থায় রাখা যাবে না।  অর্থাৎ ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে হবে।  বাহির থেকে আসার পরে আপনার চুল পরিষ্কার করতে হবে। 

প্রতি দিন সরিষা অথবা নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহার করবেন।  চেষ্টা করবেন গোসলের দুই ঘন্টা আগে মাথায় তেল নেবার।  এবং গোসলের সময় শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলবেন।  এভাবে যদি সাত দিন আপনার ত্বকের যত্ন নিতে পারেন,  আপনার খুশকি এবং চুল পড়া নব্বই শতাংশ কমে যাবে।  

এছাড়াও যে সকল ভিটামিনের অভাবে ত্বক সুস্থ থাকে,  চুল পড়া বৃদ্ধি পায়।  সে সকল ভিটামিন যুক্ত খাবার আপনার খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে।  যেমন লেবু,  শসা,  লাল এবং সবুজ শাকসবজি,  ডিম,  প্রোটিন জাতীয় খাবার  অর্থাৎ মাছ মাংস। 

নিয়মিত পরিচর্যা,  সঠিক খাদ্য গ্রহণ  এবং সতর্কতা আপনার চুল পড়া ও খুশকি চিরতরে দূর করতে পারে।  অবহেলা না করে চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায় গুলো ভালোভাবে শিখে  নিয়মিত চুলের যত্ন নিন। তবে লেবু, ডিম ও টক দই এগুলো মাথায় অতিরিক্ত ব্যবহার করবেন না। 

আরও…… মামস এর লক্ষণ ও সঠিক চিকিৎসা

Mahedi

পেশায় একজন চাকরিজীবী আমি। লেখালিখির শখ অনেক আগে থেকেই। এই শখকে পুজি করে মানুষের মাঝে জ্ঞান বিতরণের সামান্য চেষ্টা আমার। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালিখি করতে বেশি পছন্দ করি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close