Chorabali Logo
শুভেচ্ছা

মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস 2024

ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

প্রত্যেকটা মানুষই তার মনের কষ্ট বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে প্রকাশ করতে চান। আমাদের আধুনিক সমাজে বর্তমানে ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস খুব জনপ্রিয়। কেউ কেউ মনের কষ্ট প্রকাশের জন্য ফেসবুকে বিভিন্ন স্ট্যাটাস দিয়ে থাকেন। কষ্টগুলোকে মনের মধ্যে পুষে না রেখে সকলের উচিত কোনো না কোনোভাবে তা সবার কাছে ব্যক্ত করা। এতে করে কষ্টের পরিমাণ কিছুটা কমে আসে। আমাদের আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস, ইমোশনাল ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস সম্পর্কে জানতে পারবেন।

আমরা আজকে কয়েকটি ক্যাটাগরিতে আপনাদের সামনে বিভিন্ন ধরনের কষ্টের স্ট্যাটাস তুলে ধরব। যেগুলো আপনারা অনায়াসে ই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারবেন। আশা করছি, সম্পূর্ণ আর্টিকেল জুড়ে আপনারা আমাদের সাথেই থাকবেন। ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

মধ্যবিত্তরা চাইলেই তাদের জীবনের সব শখ পূরণ করতে পারেন না। তাই তাদের ভেতর থাকে এক ধরনের চাপা কষ্ট। চলুন দেখে নেই কষ্টের কিছু স্ট্যাটাস:

  1. “ধনীরা চাই প্রচুর পরিমাণে অর্ধবিত্ত, গরিব মানুষ চায় পেট ভরে একটু খাবার, আর মধ্যবিত্তরা খোঁজে বেঁচে থাকার জন্য সম্মান”।
  2. “আমি সব সময় মনে রাখি যে আমি একজন মধ্যবিত্ত তাই বড় কোন স্বপ্ন দেখার আগে কয়েকবার ভাবি”।
  3. “মধ্যবিত্তরা রাতে ঘুমিয়ে হাজারটা স্বপ্ন দেখে ফলে ঘুম ভাঙার পর দেখে হাহাকার বেড়ে যায়”।
  4. “মধ্যবিত্ত সন্তানদের পিতারা হল পৃথিবীর সব থেকে শক্তিশালী যোদ্ধা, কারণ তারা প্রতিটি সেকেন্ডে নিজের সাথে এবং সমাজের সাথে যুদ্ধ করে যান”।
  5. “মধ্যবিত্তদের জীবনে অনেক রঙ থাকে না.. তাদের সম্পূর্ণ জীবনটা কেটে যায় কিছুটা চাওয়া এবং কিছুটা অপ্রাপ্তি নিয়ে”।

ইমোশনাল ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

মেয়েদের থেকে ছেলেরা বেশি ইমোশনাল হয়। আবার সব ক্ষেত্রে কষ্টও বেশি। এমন ছেলেদের জন্য ইমোশনাল কষ্টের স্ট্যাটাস। শেয়ার করতে পারেন বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 

  1. ছেলেদের চোখের পানি খুব সহজে আসে না, এক ফোঁটা চোখের পানি মানে পাহাড় সমান কষ্ট। 
  2. একজন ছেলে যদি শুধু নিজেকে নিয়ে চিন্তা করত, তাহলে কষ্ট নামক বস্তু ছেলেদের কাছেও আসতে পারতো না। 
  3. একজন ছেলের সবচেয়ে বড় দুর্বল পয়েন্ট হলো তার পরিবার । বিশেষ করে মা, বাবা, ভাই ,বোন। 
  4. কষ্টে থাকা ছেলেদের একটা বিশেষ গুণ হল এরা কখনও হাল ছাড়ে না। 
  5.  ছেলেদের ইমোশন বলতে কিছু নাই। আছে শুধু অভাব আর ভালবাসার । 
  6. একটা ছেলের বড় হতে বেশি কিছু লাগে না। টাকা পয়সা , বাড়ি গাড়ি প্রয়োজন হয় না। তার শুধু প্রয়োজন আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর মানুষ। 
  7. এই পৃথিবীতে ছেলেদের ইমোশনের কোন দাম থাকে না। আপনি কাদলে মানুষ হাসবে, আপনি চুপ করে থাকলেও মানুষ হাসবে, আপনি হাসলেও মানুষ আপনাকে দেখে মজা করবে। 
  8. খালি পেট আর খালি পকেট ছেলেদের জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা। কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এই শিক্ষা দিতে পারবে না।   
  9. অভিনয় নামক শব্দ ছেলেদের ডিকশনারীতে থাকে না, থাকে শুধু ভালবাসা। 
  10. ভালবাসার জন্য ছেলেদের থেকে বড় নিদর্শন আর কে রেখেছে? 

বড় ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

সংসারে বড় ছেলেরা যেন মহান সৃষ্টিকর্তার এক অনন্য সৃষ্টি । ভালো গুনের যেন অর্ধেকই দান করেছে বড় ছেলেদের মধ্যে। তাই বড় ছেলেদের কষ্টও অনেক বেশি। এখানে কিছু বড় ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস আছে। এইগুলো তাদের কষ্ট দূর করবে না হয়তো, কিন্তু সাহস যোগাবে । 

  1. “পৃথিবীর প্রতিটা বড় ছেলের দায়িত্ব হলো পরিবারের সব মানুষগুলোকে একসাথে জড়িয়ে রাখা, থাক না নিজের স্বপ্নগুলো একটু দূরে সরে”।
  2. “পরিবারের বড় ছেলে মানেই বোকা, অশিক্ষিত, সহজ সরল। কিন্তু সব থেকে বেশি পরিশ্রমী। কারণ তারা ছোট থেকে যুদ্ধ করতে জানে”।
  3. “পরিবারের বড় ছেলেরা তাদের নিজের স্বপ্নের কান্ডারি না হয়ে পরিবারের মানুষের স্বপ্নের কান্ডারী হয়”।
  4. “ পরিবারের বড় ছেলেই একমাত্র জানে যে বাবা ছাড়া জীবন যুদ্ধে জয়ী হওয়া নিদারুণ কঠিন ব্যাপার”।
  5. “পরিবারের বড় ছেলেরা চাইলেও স্বার্থপর হতে পারে না, কারণ তার ছোট ছোট স্বার্থগুলো পরিবারের উপর নিহিত থাকে”।
  6. “বড় হওয়া কোন পাপ না, এটা আল্লাহর রহমত। কথা আছে ভোগের থেকে ত্যাগে শান্তি বেশি। বড় ছেলেরা এই শান্তিটাই বেশি পায়।”  

আরও>>  কষ্টের ফেসবুক স্ট্যাটাস, উক্তি, ক্যাপশন ও ছবি

মধ্যবিত্ত নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস

আমাদের আর্টিকেল থেকে মধ্যবিত্ত নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস নিজের টাইমলাইনে আপলোড করতে পারেন।

  • “ সমাজের সবথেকে ভয়ংকর এবং খারাপ রূপ একমাত্র মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজনই দেখতে পায়।”
    -হুমায়ূন আহমেদ।
  • “আমার সব থেকে বড় অতীত হলো আমি একজন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান, এবং এটি সারা জীবন আমি মনে রাখতে চাই”।
    -নিতা আম্বানি।
  • “মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানরা তাদের জ্ঞানের ঝুলি জন্ম থেকেই খুলে রাখে, কারণ এই ঝুলি সারা জীবনেও বন্ধ হয় না”
    -জেফ্রি কানাডা
  • “আমার হাতে ডিজাইন করা ট্যাটু আমাকে মনে করে দেয় আমি মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে এসেছি, তাই এটা আমার মস্তিষ্কে গেঁথে রয়েছে”।
    -টম হার্ডি।
  • “মধ্যবিত্ত কথাটা শুনতে ছোট মনে হলেও এর বিস্তৃতি অনেক বড়, যা একটা সম্পূর্ণ ডিকশনারি তো প্রকাশ করা সম্ভব নয়”।

মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

এই পৃথিবীর সবচেয়ে পাপী মানুষ হল মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ। এরা জান্নাত ও জাহান্নামের মধ্যে ঝুলে থাকে। জীবনের কোন সাধ আহ্ললাদ পূরণ এক প্রকার স্বপ্ন মনে হয়। মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্ট কাউকে বুঝানো যায় না। এখানে কিছু মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস শেয়ার করলাম যা আপনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে মনে কষ্ট কিছুটা হলেও দূর করতে পারবেন।  মধ্যবিত্ত ছেলেরা তাদের কষ্টগুলো ছবির ক্যাপশন এর মাধ্যমে অনেক সময় ফেসবুকে শেয়ার করতে চান। 

১) “অন্ধকার ঘরে সামান্য আলো, কানে হেডফোন এবং বুকে হাজারো যন্ত্রণা…হ্যাঁ এটাই মধ্যবিত্ত ঘরের সন্তানদের জীবন” ।

২) “মধ্যবিত্ত ঘরের ছেলেরা সহজে কাঁদে না, কারণ তাদের মন অনেক ছোট থেকেই পাথরের মত শক্ত”।

৩) “মধ্যবিত্ত ঘরের ছেলেরা সারাদিন তাদের পরিবারের মানুষগুলোর দায়িত্ব নিজের ঘাড়ে
নেন, কিন্তু দিনশেষে তাদের মন পড়ে দেখার মতো কেউ থাকেনা”।

৪) “মধ্যবিত্ত ছেলেদের উপন্যাসের বই কিনে পড়বার প্রয়োজন হয় না, কারণ তাদের নিজেদের জীবনের গল্পই একটি বড় উপন্যাস এবং সেই গল্পে সে নিজেই নায়ক”।

৫) “মধ্যবিত্ত ঘরের ছেলে হওয়া পাপ কিনা জানি না, ২য় বার জন্ম নিলে আল্লাহকে বলতাম মধ্যবিত্ত ঘরে আমাকে জন্ম দিও না।” 

শেষ কথা

ছেলে মানুষের জীবন হল আগুনে পোড়া কয়লা। কয়লাকে যতই পোড়ান না কেন কয়লা ছাড়া কিছুই পাবেন না। আমাদের আশে পাশের যে মানুষ গুলো আছে তাদের থেকে আমাদের বেশি কিছু চাওয়ার নেই। আমরা শুধু সবার থেকে একটু সাপোর্ট চাই। যা একটা ছেলেকে পাহাড় সমান বিপদকে পার পরতে সাহস যোগায়। ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস গুলোর মাধ্যমে ছেলে জাতিকে সাহস দেওয়ার সামান্য চেষ্টা আমাদের। 

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলেদের মনের কষ্ট নিয়ে কিছু স্ট্যাটাস লেখার চেষ্টা করেছি। যারা তাদের নিজেদের ফেসবুক পোস্টে বিভিন্ন কষ্টের স্ট্যাটাস শেয়ার করতে চান তারা আমাদের আর্টিকেলটি ফলো করতে পারেন।

Mahedi

পেশায় একজন চাকরিজীবী আমি। লেখালিখির শখ অনেক আগে থেকেই। এই শখকে পুজি করে মানুষের মাঝে জ্ঞান বিতরণের সামান্য চেষ্টা আমার। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালিখি করতে বেশি পছন্দ করি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close