Chorabali Logo

ত্বক ও চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল

বিউটি ইন্ডাস্ট্রিতে বিভিন্ন ভালো মানের তেল সম্পর্কে আমরা কমবেশি সবাই জানি। ল্যাভেন্ডার অয়েল, টি ট্রি অয়েল, অলিভ অয়েল, আমলকি তেল ইত্যাদি তেলের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে আমাদের সবারই কম বেশি জানা। বহু বছর ধরে ত্বক ও চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

সাধারণত ত্বকের শুষ্ক ভাব, ব্রণ, নখের ফাংগাল, ত্বকের তেলতেলে ভাব, স্কিন ব্লেমিশ রোধ, ত্বকের দাগ দূর করতে টি ট্রি অয়েল ব্যবহার করা হয়। আবার চুলের বিভিন্ন সমস্যা মোকাবেলায় টি ট্রি ব্যবহৃত হয়। 

চুলের খুশকি দূর করতে, চুলকে গোড়া থেকে মজবুত করতে এমনকি উকুনের মতো সমস্যা মোকাবেলায় টি ট্রি অয়েল ব্যবহৃত হয়। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ত্বক ও চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল এর ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করব।

ত্বকের যত্নে টি ট্রি অয়েল

টি ট্রি অয়েলে বিদ্যমান রয়েছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, এন্টি ফাংগাল, অ্যান্টিসেপটিক এর মতো উপাদান গুলি। যা স্ক্রিন এবং হেয়ার দুটোর ক্ষেত্রে খুবই উপকারী। ত্বকের যত্নে টি ট্রি অয়েল এখন অনেকেরই পছন্দের শীর্ষে। চলুন জেনে নেই ত্বকের যত্নে এই তেল কিভাবে কাজ করে?

  • ড্রাই স্কিন মশ্চারাইজ করে,

  • ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করে,

  • ব্রণের সমস্যা প্রতিরোধ করে,

  • নখের ইনফেকশন দূর করে,

  • স্কিন ইরিটেশন এর সমস্যা দূর করে,

  • ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করে,

  • স্কিনের দাগ দূর করে,

ড্রাই স্কিন মশ্চারাইজ করে

রুক্ষ হয়ে যাওয়া ত্বককে ভেতর থেকে ময়েশ্চারাইজ করে টি ট্রি অয়েল। রাতে ঘুমানোর আগে কয়েক ফোঁটা টি ট্রি ওয়েল সামান্য পানির সাথে মিশিয়ে মুখে এপ্লাই করে ঘুমিয়ে যান। সকালে উঠে একটি স্নিগ্ধ ত্বক পাবেন।

ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করে

দীর্ঘদিনের রোদে পোড়ার কারণে ত্বকে যে কালো দাগ সৃষ্টি হয় তা দূর করতে টি ট্রি অয়েল ব্যবহার করা হয়। রোদে পোড়া ভাব দূর করতে এই তেলটি নিয়মিত কিছুটা পানির সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করুন।

ব্রণের সমস্যা প্রতিরোধ করে

ত্বকের গভীর থেকে ব্রণের ব্যাকটেরিয়া দূর করতে টি ট্রি  অয়েল খুব ভালো কাজ করে। একটা নরম কাপড়ের সাহায্যে এই অয়েলটি সামান্য পরিমাণে নিয়ে মুখে এপ্লাই করুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেললে দেখবেন ব্রণের সমস্যা অনেকটা কমে গেছে।

নখের ইনফেকশন দূর করে

ভেতর থেকে নখের ইনফেকশন দূর করতে এই অয়েলটি ব্যবহার করা হয়। টি ট্রি অয়েল কিছুটা পানির সঙ্গে মিশিয়ে হাত এবং পায়ের নখ ডুবিয়ে রাখুন। কয়েকদিন ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।

স্কিন ইরিটেশন এর সমস্যা দূর করে

টি ট্রি অয়েল কিছুটা এলোভেরা জেল এর সঙ্গে মিশিয়ে‌ ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন। এটি স্কিন ইটেশনের সমস্যা পুরোপুরি দূর করে।

ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করে

টি ট্রি অয়েলের সাথে কিছুটা মধু মিশিয়ে ত্বকে মাসাজ করুন। কিছুটা সময় পর ত্বক পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এটি খুব উপকারী।

স্কিনের দাগ দূর করে

স্কিনের দাগ দূর করতে টি ট্রি অয়েলের সঙ্গে কিছুটা মুলতানি মাটি এবং এক চা চামচ মধু মিশিয়ে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করুন। এটি শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত মুখে লাগিয়ে রাখুন। এটি ত্বকের যাবতীয় দাগ দূর করবে।

চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল

চুলের বিভিন্ন সমস্যা মোকাবেলায় প্রতিদিন ব্যবহার করুন টি ট্রি অয়েল। চলুন জেনে নেই চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল এর ব্যবহার:

  • উকুনের সমস্যা দূর করে,

  • চুল পড়া সম্পূর্ণভাবে রোধ করে,

  • খুশকি নিরাময়ে সাহায্য করে,

  • চুলের আগা ফাটা রোধ করে,

  • চুলের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ধরে রাখে,

  • চুলের অকালপক্কতা রোধ করে।

শেষ কথা

ত্বক ও চুলের যত্নে টি ট্রি অয়েল বিভিন্ন নামিদামি সেলুন থেকে শুরু করে ব্যক্তিগতভাবে ও এটি ব্যবহৃত হয়। তবে এই তেল চোখে গেলে মারাত্মক রকমের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই এই ব্যাপারে সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে। এই অয়েল টি ব্যবহারের ক্ষেত্রে মনে রাখবেন, সামান্য পানির সাথে মিশিয়ে এটি ব্যবহার করতে হয়। শুধুমাত্র ট্রিট্রি অয়েল ত্বক এবং চুল উভয়ের জন্যই ক্ষতিকর।

বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

১)টি ট্রি অয়েল কোথায় পাওয়া যায়?

উত্তর: বিভিন্ন অনলাইন শপ এবং শপিংমলে পাওয়া যায়।

২)টি ট্রি অয়েল দাম কত বাংলাদেশ?

উত্তর: ১০ এম এল এর দাম ৮৬০ টাকা।

৩)টি ট্রি অয়েল মুখে ব্যবহারের নিয়ম?

উত্তর: টি ট্রি অয়েল পানি অথবা গোলাপজল এর সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top