Chorabali Logo
স্বাস্থ্য

নখ কাটার সুন্নত পদ্ধতি

সপ্তাহে দিনে একবার নখ কেটে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হওয়া সুন্নত। শুক্রবারে জুমার নামাজের আগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হওয়ার সময় নখ কাটা সুন্নত। হাত এবং পায়ের নখ কাটার আগে ডান দিক থেকে শুরু করার চেষ্টা করবেন।

হাত এবং পায়ের ডান দিক থেকে নখ কাটা শুরু করা সুন্নত। নখ কাটার সুন্নত পদ্ধতি হলো মোনাজাতের আকৃতিতে দুই হাত ধরে ডান হাতের শাহাদাত আঙ্গুল থেকে নখ কাটা শুরু করতে হবে। এবং  একে একে বাম হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলের নখ কাটা কাটতে হবে। এবং চেষ্টা করবেন সবার শেষে ডান  হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলের নখ টি কাটার।

ঠিক একই পদ্ধতিতে পায়ের নখ কাটতে হবে। ডান পায়ের কনিষ্ঠা আঙ্গুল থেকে নখ কাটা শুরু করতে হবে। এবং বাম পায়ের কনিষ্ঠা আঙ্গুলে নখ সবশেষে কাটতে হবে। নিচে আমরা নখ কাটার সুন্নত পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব:

নখ কাটার ইসলামিক নিয়ম

ইসলামের বিধানগুলোর মধ্যে নখ কাটার কথা বলা হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে ধরাবাঁধা কোন সময়ের কথা উল্লেখ করা হয়নি। তবে বিভিন্ন পুস্তকে নখ কাটার বিভিন্ন নিয়ম উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু যুগের সাথে এগুলো ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে। 

হাত পায়ের নখ কেটে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা সুন্নতের অন্তর্গত। রাসুল (সা.) ফিতরাত এর যে পাঁচটি বিষয় উল্লেখ করেছেন তাদের মধ্যে নখ কাটা অন্যতম। হাত পায়ের নখ এবং শরীরের অবাঞ্ছিত লোম ৪০ দিনের ভেতর না কাটলে সেটা গোনাহ এর অন্তর্ভুক্ত।

ইসলামিক দৃষ্টিভঙ্গিতে নারী এবং পুরুষ উভয়ের নখ কাটার নিয়ম এক। এটা স্পষ্ট যে ডান হাত এবং ডান পায়ের নখ আগে কাটা সুন্নত। কিন্তু কোন আঙ্গুল থেকে নখ কাটা শুরু করতে হবে এর বিষয়ে স্পষ্ট কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন হাদিস ও সাহাবিদের দৃষ্টিভঙ্গি তাদের আমলের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়নি।

তবে উল্টো ভাবে নখ কাটা শুরু করা একেবারেই উচিত নয়। নখ কাটা নিয়ে বিভিন্ন দিন, তারিখ মেনে চলা, বাম হাতের নখ কাটা পরে শুরু করতে হবে গুলো মনে করা সুন্নত বিরোধী কাজ। বিভিন্ন মুহাদ্দিসগণ এর মতামত পর্যালোচনা করে দেখা যায়, নখ কাটার তেমন কোন সুনির্দিষ্ট নিয়ম নেই।

নখ কাটার নিষিদ্ধ সময়

ইসলামিক দৃষ্টিভঙ্গিতে নখ কাটার নির্দিষ্ট সময়ে উল্লেখ করা হয়নি। কারণ ইসলামী শরীয়তে মঙ্গল- অমঙ্গল, শুভ- অশুভ ইত্যাদি ধরনের কোন অস্তিত্ব নেই। বিধায় কেউ যদি  রাতে নখ কাটেন তাহলে সেটা ইসলামিক দৃষ্টিভঙ্গিতে মাকরুহ নয়।

যে কোন মুসল্লী চাইলে রাতের বেলায় নখ কাটতে পারেন। তবে রাতের বেলা নখ কাটলে নখ বেশি কাটা হয়ে যেতে পারে অথবা হাত কাটার সম্ভবনা থাকে। তাই দিনের আলোতে নখ কাটা উচিত। 

তবে নখ কাটার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র শুক্রবারকেই সুন্নত দিন হিসেবে মনে করাও ভুল। রাসুল (সা.) নির্দিষ্ট কোনো নিয়ম দেননি বিধায় আপনি সপ্তাহে যেকোনো একদিন যেকোনো সময় নখ কাটা সুন্নত। তাই ইসলামিক দৃষ্টিভঙ্গিতে নখ কাটা নিষিদ্ধ সময় নেই বললেই চলে।

শেষ কথা

নখ কাটা নিয়ে অনেক আঞ্চলিক কথাবার্তা শুনতে পাওয়া যায়। কেউ কেউ এটাকে আবার ইসলামিক মোড়কে জড়িয়ে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেন। কিন্তু নখ কাটার সুন্নত পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে কোন হাদিসে বর্ণনা করা হয়নি। 

অনেকেই মনে করেন শুক্র এবং শনি এই দুই দিনের মধ্যে যে কোন একদিন নখ কাটা সুন্নত। কিন্তু এটাও পুরোপুরি ভুল ধারণা। নখ কাটার সব থেকে ভালো নিয়ম হলো নখ বড় হলেই নখ কেটে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।

বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

১)রাতে কেন নখ কাটতে হয় না?

উত্তর: রাতে অল্প আলোতে নখ কাটলে হাত কেটে যেতে পারে অথবা নখের ক্ষতি হতে পারে। এজন্য দিনের আলোতে নখ কাটতে বলা হয়।

২)রাতে নখ কাটলে কি হয় ইসলাম কি বলে?

উত্তর: ইসলামিক মতে রাতে নখ কাটা যাবে। বিষয় ইসলাম কোন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি।

৩)ঘরে নখ ফেললে কি হয়?

 উত্তর: নখ কাটার পর সেগুলো ঘরে না ফেলে মাটিতে পুঁতে রাখা উত্তম।আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা তার চুল এবং নখ কাটার সাথে সাথেই মাটির নিচে পুঁতে দিতেন।

Mahedi

পেশায় একজন চাকরিজীবী আমি। লেখালিখির শখ অনেক আগে থেকেই। এই শখকে পুজি করে মানুষের মাঝে জ্ঞান বিতরণের সামান্য চেষ্টা আমার। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালিখি করতে বেশি পছন্দ করি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close