Chorabali Logo
স্বাস্থ্য

সর্দি থেকে মুক্তির উপায় [ক্লিক করে] ঘরোয়া উপায় দেখে নিন

বর্তমান সময় আবহাওয়া প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হচ্ছে। আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে মানুষের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। অনেক সময় শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে অনেকেই সর্দি কাশি কিংবা জ্বরে ভুগছে আবার অনেক সময় তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণেও অনেকের এই সমস্যাগুলো দেখা দিচ্ছে। তবে প্রতিনিয়ত অধিকাংশ মানুষের মাঝে যে সমস্যাটি বিদ্যমান সেটি হয়েছে সর্দি। সর্দি অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের রোগের সৃষ্টি করে থাকে। সর্দি-কাশি কিংবা ঠান্ডা কাশি অথবা সর্দি জ্বর হচ্ছে এক ধরনের ভাইরাস জনিত সংক্রামক যা একজন মানুষের ঊর্ধ্ব শ্বাস পথ বিশেষ করে মানুষের নাকে আক্রমণ করে থাকে। এই সংক্রামক বেঁধে একজন মানুষের শরীরের আক্রমণ করলে ঘন ঘন হাঁচি ঘন ঘন কাশি হয়ে থাকে। সাধারণত সর্দি কাশি একজন মানুষের শরীরে ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে অবস্থান করে থাকে। এই সর্দি কাশি দীর্ঘস্থায়ী হলে মানুষের শরীরে জটিল রোগ বাধা বাঁধতে পারে। তাই আমাদের অবশ্যই সর্দি কাশি কিংবা সর্দি জ্বর থেকে মুক্তির উপায় গুলো জানতে হবে। আজকে আমরা আপনাদের উদ্দেশ্যে জন্যই নিয়ে এলাম সর্দি কাশি থেকে মুক্তির উপায় অর্থাৎ আমরা ঘরোয়া ভাবে আপনাদের মাঝে সর্দি কাশি থেকে মুক্তির উপায় গুলো শেয়ার করব। আপনারা আমাদের আজকের প্রতিবেদনটির সাথেই থাকুন।

সকলের কাছে একটি পরিচিত সংক্রামক এর নাম হচ্ছে সর্দি জ্বর ঠান্ডা কাশি কিংবা সর্দি যা একজন মানুষের উর্ধ্ব শেষ পথ বিশেষ করে নাকি আক্রমণ করে থাকে এবং বেশ কিছুদিন মানবদেহে অবস্থান করে থাকে। সাধারণত একজন সুস্থ মানুষের সর্দি কিংবা ঠান্ডা কাশি অথবা সর্দি জ্বর হলে তা এক সপ্তাহ কিংবা ১০ দিনের মধ্যে সেরে গিয়ে ব্যক্তি সুস্থ হয়। কিন্তু সর্দি জ্বর কিংবা ঠান্ডা কাশি অথবা সর্দি একজন মানুষের শরীরে ২-৩ সপ্তাহ কিংবা এক মাস অবস্থান করলে জটিল রোগের লক্ষণ কিংবা উপসর্গ হতে পারে কেননা দীর্ঘস্থায়ী সর্দি কাশি কিংবা ঠান্ডা জ্বর নিউমোনিয়ার তৈরি করে থাকে। তাই প্রতিটি মানুষকে শরীর সুস্থ রাখতে এবং এসব সংক্রামক ব্যাধি প্রতিকার করার উপায় সম্পর্কে জানতে হবে। যেহেতু সর্দি সাধারণত ঠান্ডা লাগার কারণে হয়ে থাকে সেহেতু আমাদের সকলের উচিত অতিরিক্ত ঠান্ডা কোন কিছু এড়িয়ে চলা। সেই সাথে শীতকালে ছোট বাচ্চাদের কিংবা বৃদ্ধ ব্যক্তিদের স্বাস্থ্যের প্রতি সতর্ক হওয়া। কেননা ছোট বাচ্চা এবং বৃদ্ধ ব্যক্তিরা সাধারণত হিসাব সংক্রামকে বেশি আক্রান্ত হয় এবং এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে। এজন্যই সকলকে সর্দি কিংবা ঠান্ডা কাশি অথবা সর্দি জ্বরের ঘরোয়া প্রতিকার সমূহ জেনে রাখা আবশ্যক তাহলে মূলত প্রাথমিক চিকিৎসা হিসাবে এই ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে সহজেই ঠান্ডা কাশি সর্দি জ্বর থেকে শরীরকে মুক্ত করা সম্ভব।

সর্দি থেকে মুক্তির উপায়

সর্দি-সাধারনত প্রতিটি মানুষের উর্ধ্ব শ্বাসপথ অর্থাৎ বিশেষ করে নাকের মাধ্যমে শরীরে ভাষা বেধে থাকে। সাধারণত অতিরিক্ত ঠান্ডা লাগার কারণে সর্দি ভাইরাসজনিত এই সংক্রামক টি শরীরের আক্রমণ করে থাকে এটি নাক ছাড়াও মানুষের গলবিল অস্থি গহ্বর ও স্বর যন্ত্রের ক্ষতি করে থাকে। তাই আমাদের সর্দিকে সাধারণভাবে না নিয়ে বরং ভাইরাস জনিত এই সংক্রামক টির প্রতিরোধের উপায় জানতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ কিংবা ওষুধ ছাড়াও এই সর্দি থেকে নিরাময় লাভ করা সম্ভব। যদি আপনাদের সর্দি থেকে মুক্তির উপায় গুলো জানা থাকে তাহলে আপনারা সহজেই এই সংক্রামক থেকে আরোগ্য লাভ করতে পারবেন। এজন্য আপনাদের উদ্দেশ্যে সর্দি থেকে মুক্তির উপায় গুলো তুলে ধরা হয়েছে এই উপায় গুলো শুধুমাত্র আপনার শরীরের জন্য নয় বরং আপনার পরিবারের প্রতিটি মানুষকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে। নিচে সর্দি থেকে মুক্তির উপায় গুলো তুলে ধরা হলো,

  • বিশ্রাম নিন ও পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান
  • শরীর উষ্ণ রাখুন
  • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। পানির পাশাপাশি তরল খাবারও উপকারী। যেমন: ফলের জুস, চিড়া পানি, ডাবের পানি, স্যুপ, ইত্যাদি। পানিশূন্যতা এড়াতে এমন পরিমাণে তরল খাওয়া উচিত যেন প্রস্রাবের রঙ স্বচ্ছ অথবা হালকা হলুদ হয়
  • গলা ব্যথা উপশমের জন্য লবণ মিশিয়ে কুসুম গরম পানি দিয়ে গড়গড়া করুন। তবে ছোটো শিশুরা ঠিকমতো গড়গড়া করতে পারে না বলে তাদের ক্ষেত্রে এই পরামর্শ প্রযোজ্য নয়
  • কাশি উপশমের জন্য মধু খেতে পারেন। ১ বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের জন্য এই পরামর্শ প্রযোজ্য নয়

সর্দি থেকে মুক্তি লাভ করার ঘরোয়া উপায়

প্রাকৃতিক বিভিন্ন ধরনের ভেষজ কিংবা ওষুধ অথবা ঘরোয়া উপায়ে সর্দি থেকে মুক্তি লাভ করা সম্ভব। এক্ষেত্রে আমাদের সকলকে ঘরোয়া উপায়ে সর্দি থেকে মুক্তি লাভের টিপস গুলো জানতে হবে। তাহলে এই চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত এবং ওষুধপত্র ছাড়াই আমরা সর্দি থেকে মুক্তি লাভ করতে পারব। তাই আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের উদ্দেশ্যে সর্দি থেকে মুক্তি লাভ করার ঘরোয়া উপায়গুলো সুন্দরভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। সমস্ত নিয়মকানুন সংগ্রহ করার মাধ্যমে আপনারা সহজেই সর্দি থেকে মুক্ত লাভের এই ঘরোয়া উপায় গুলো জানতে পারবেন।

আদা চা : সর্দি-কাশি দূর করতে আদা চায়ের জুড়ি মেলা ভার। আদা কুচি করে গরম পানি বা গরম চায়ে দিয়ে পান করুন। এতে সর্দি-কাশির সমস্যা একেবারেই দূর হবে।

লেবু ও মধু : লেবু ও মধুর মিশ্রণটিও আদা চায়ের মতোই অত্যন্ত উপকারী। এক গ্লাস গরম পানিতে দুই চা চামচ মধু ও এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে সর্দি-কাশি দূর হবে।

Mahedi Roni

আমি মেহেদি হাসান। পেশায় একজন বেসরকারি চাকরিজীবী। ২০১৫ সাল থেকে লেখালিখি নিয়ে আছি। এখন লেখালিখি পেশা ও সখ ২ টাই হয়ে গেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close